মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

হলুদবিহার দ্বীপ

সংক্ষিপ্ত বর্ণনাঃ হলুদবিহার দ্বীপ প্রাচীন আমলের একটি পুরাতন ধ্বংসাবশেষ। এখানে রয়েছে অনেকগুলো বিক্ষিপ্ত প্রাচীন ঢিবি বিশাল এলাকাজুড়ে এগুলো বিস্তৃতস্থানীয়ভাবে দ্বীপগঞ্জ নামে পরিচিত বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে প্রচুর পুরনো ইট, ভাঙা মৃণ্ময় পাত্রের টুকরো ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক ধ্বংসাবশেষএ থেকে ধারণা করা যায়, এখানে একসময় প্রাচীন বৌদ্ধ বসতির নিদর্শন আছে।  এ দ্বীপটির একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হল, সংলগ্ন ভূমি থেকে ৭.৫ মিটার উঁচু ও প্রায় ৩০ মিটার দীর্ঘ একটি বিরাট ঢিবি, যা হাট বা বাজার হতে পশ্চিমে অবস্থিতবাজারস্থান থেকে সামান্য দূরে উত্তরদিকে রয়েছে অন্যান্য নিদর্শনভারতের প্রত্নতত্ত্ব জরিপ বিভাগের জিসি দত্ত ১৯৩০-৩১ খ্রিস্টাব্দের দিকে স্থানটি পরিদর্শনকালে লক্ষ করেন, এটি পূর্ব-পশ্চিমে ৬৪.৫ মিটার এবং উত্তর-দক্ষিণে ৪০.৫ মিটার এবং সংলগ্ন ভূমি থেকে এর উচ্চতা প্রায় ১০.৫ মিটার ১৯৬৩ খ্রিস্টাব্দের দিকে কাজী মেসের এ অঞ্চল পরিদর্শন করে পাথরের একটি ভগ্ন বৌদ্ধমূর্তি ও পাহাড়পুররীতির কয়েকটি পোড়ামাটির ফলক উদ্ধার করেনহলুদবিহার ১৯৭৬ খ্রিস্টাব্দে সংরক্ষিত করা হয় এবং বাংলাদেশের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ প্রথমে ১৯৮৪ খ্রিস্টাব্দে এবং পরে ১৯৯৩ খ্রিস্টাব্দে খনন করেএতে একটি মন্দির কমপ্লেক্স আবিষ্কৃত হয়এ ভবনের চারপাশে ১.১ মিটার প্রশস্ত হাঁটাচলার একটি পথ ছিলমন্দির কমপ্লেক্সের উত্তর ও দক্ষিণ দিকে দুটি অভিক্ষেপের ধ্বংসাবশেষ অংশত উদ্ঘাটিত হয়েছেঅভিক্ষেপের দিকে একটি ইট বাঁধানো পথ দক্ষিণ দিক থেকে প্রবিষ্ট ছিলকয়েকটি স্থানে সর্বোচ্চ ৬.১৫ মিটার গভীরতায় খননকার্য আট স্তরে সম্পন্ন হয়েছেএসব স্থান হতে বেশ কিছু কৌতূহলোদ্দীপক প্রাচীন নিদর্শনাদি ও সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছেএখানে আরও পাওয়া গেছে মাটির পাত্র ও তাওয়াএগুলোর মধ্যে রয়েছে খোদাইকৃত পোড়ামাটির সিল, অলংকৃত ইট, মানুষের মূর্তি সংবলিত বেশ কিছু ভাঙাচোরা পোড়ামাটির ফলকপাথরের সামগ্রীগুলোর মধ্যে একটি মূর্তির স্তম্ভমূল, অলংকারের ঢালাই ছাঁচ এবং চূর্ণনযন্ত্র উল্লেখযোগ্যএ পর্যন্ত হলুদবিহারে সীমিত আকারে যে খননকার্য করা হয়েছে তা অভ্রান্তভাবে প্রাথমিক মধ্যযুগের বেশ সমৃদ্ধিশালী বৌদ্ধ বসতির অস্তিত্ব নির্দেশ করেএটি বরেন্দ্র অঞ্চলের পাহাড়পুর এবং সীতাকোটের ধ্বংসাবশেষের সমসাময়িক। 

কিভাবে যাওয়া যায়:

পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার থেকে পনেরো কিলোমিটার দক্ষিণে, মহাস্থান গড় থেকে পঞ্চাশ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে এবং নওগাঁ জেলা শহর থেকে আঠারো কিলোমিটার উত্তরে বদলগাছী উপজেলার বিলাসবাড়ী ইউনিয়নের দ্বীপগঞ্জ বাজারে এ হলুদবিহার দ্বীপ অবস্থিত।